বিয়ের অনুষ্ঠানে হামলার ঘটনায় মামলা তুলে নিতে বাদীকে হুমুকি ভয়ে ঘর ছাড়া পরিবার | আনোয়ারা চট্টগ্রাম


চট্টগ্রামের আনোয়ারার পূর্ব গহিরা গ্রামে মনির আহমদের মেয়ের বিয়ের অনুষ্ঠানে যাওয়ার পথে তার পরিবারের উপর সন্ত্রাসী হামলা, স্বজনদের লাঞ্ছিত ও স্বর্ণলংকার ছিনতাইনের ঘটনা মামলা তুলে নিতে বাদিকে প্রাণনাশের হুমুকি দিয়ে ঘর ছাড়া করেছে পরিবারটিকে।

এ ঘটনায় গত শুক্রবার (১৪ জুন) আনোয়ারা থানায় মোহাম্মদ আলীর পুত্র মোহাম্মদ মিজান (২১), মৃত মফজল আহমদের পুত্র মোহাম্মদ শহীদ (২০), মৃত মো. আকতারের পুত্র শেখ আহমদ (২৩), মোহাম্মদ শাহাদত (২০) ও মোহাম্মদ নুরুন্নবীর পুত্র মোহাম্মদ রহিম (২০) কে আসামী করে একটি মামলা করেন বাদি মোহাম্মদ ফরিদ। আসামী পক্ষ উল্টো মামলা তুলে নিতে বাদী ও তার পরিবারকে হুমুকি দিচ্ছে বলে জানিয়েছেন বাদীর পরিবার।

জানা যায়, গত ১৩ জুন বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার বারশত ইউনিয়নের সুরমা পুকুর পাড়ে একটি কমিউনিটি সেন্টারে মনির আহমদের মেয়ের বিয়ের অনুষ্ঠান ছিল। অনুষ্ঠানে মনির আহমদ পরিবার নিয়ে যাওয়ার পথে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে স্থানীয় কয়েকজন লোক দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তাদের উপর হামলা চালায়। তারা এক পর্যায়ে তার পরিবারকে লাঞ্ছিত করে এবং স্বর্ণালংকার ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায়। এ সময় ছিনতাইকারীরা মোহাম্মদ জাফর (১৯), মোছাম্মৎ কামরুন্নাহার (৫০), রানু আকতার (৩৫) ও মঞ্জু আকতাকে (৩৫) গুরুতরভাবে আহত করে। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে প্রেরণ করে। আহতরা বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

মামলার বাদি মোহাম্মদ ফরিদ বলেন, একমাস আগে তাদের সাথে আমার পরিবারের সাথে ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে বিরোধ সৃষ্টি হয়। এটি স্থানীয় সালিশি বৈঠকের মাধ্যমের সমাধান হয়। কিন্তু আমার বোনের বিয়ের মেহেদী অনুষ্ঠানে যাওয়ার পথে তারা পূর্ব শক্রতার জের ধরে আমার পরিবারের উপর ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীদের নিয়ে হামলা করে ও স্বর্ণালংকার ছিনতাই করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় আমি থানায় মামলা করলে সে মামলা তুলে নিতে প্রাণনাশের হুমুকি দিচ্ছে এবং আমাদের জন্য উল্টা একটি মামলাও করেছে। ভয়ে আমরা এখন ঘর ছাড়া। আমি সুষ্ঠু বিচার চাই।

এ ঘটনার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই বিল্লাল হোসেন বলেন, এ মামলার তদন্ত চলছে, মামলার আসামীরা বাদী পক্ষকে আসামী করে পাল্টা মামলা করেছে। তদন্ত শেষে অপরাধীেেদর আইনের আওতায় আনা হবে। বাদীকে হুমকির ব্যাপারে অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মো. ইমরান হোসাইন # ২৯.০৬.২০১৯ ইং।

মোঃজাবেদুল  ইসলাম আনোয়ারা (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি:

No comments

Powered by Blogger.