ঈদে শিক্ষক কর্মচারীদের বেতন-বোনাস উত্তোলন অনিশ্চিত


রেজাউল করিম সরিষাবাড়ী, (জামালপুর) প্রতিনিধি :  পবিত্র ঈদ-উল ফিতরে সন্তান পরিজনদের চাওয়া পাওয়া মেটাতে পারছেন না দেশের পাঁচ লক্ষ শিক্ষক কর্মচারী। সরকারী চাকুরীদের যেখানে বেতন ভাতা ২৮ মে পাবেন সেখানে অনিশ্চিত বেতনের আশায় বসে আছেন শিক্ষক কর্মচারীরা।

 এম,পি,ও ভুক্ত শিক্ষক কর্মচারীদের মে/১৯ মাসের বেতন এবং ঈদ বোনাসের ছাড়ের ব্যাপারে আদেশ জারী হলেও বেতন উত্তোলন ০৩ জুন ২০১৯ খ্রিঃ।অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড এর বার্ষিক ক্যালেন্ডারে দেখা যায় ০৩ জুন বাদে ০১ তারিখ থেকে টানা ০৮ তারিখ পর্যন্ত ব্যাংক বন্ধ থাকবে সে ক্ষেত্রে শহরের শিক্ষক কর্মচারীরা বেতন উত্তোলন করতে পারলেও গ্রামের শিক্ষক কর্মচারীরা বেতন ভাতা উত্তোলন করতে পারবেন না।

নাম না বলার শর্তে একজন প্রধান শিক্ষক বলেন, ঈদ সবার মাঝে আনন্দ নিয়ে আসে কিন্তু শিক্ষকদের  ঈদ আসে গভীর বেদনা নিয়ে কারণ সময়মত বেতন ভাতা না পেয়ে শিক্ষক তার সন্তান ও স্ত্রীর কাছে ছোট হন এবং সমাজের কাছেও হয়েযান করুনার পাত্র।

সহকারী শিক্ষক ইমরুল কায়েস বলেন, শিক্ষা অধিদপ্তর আগে বেতন বোনাস ছাড়লেও সরিষাবাড়ী অগ্রনী ব্যাংক বিভিন্ন টাল বাহানা করে বিধায় শিক্ষকরা কোন ঈদেই সময় মত টাকা উত্তোলন করতে পারেনা। ব্যাংক কর্তৃপক্ষ এখনও এম,পি,ও সীট  আসে নাই বলে বিদাই করে দেয়। অথচ এই ডিজিটাল যুগে এম,পি,ও সীট আসতে সময় লাগার কথা মাত্র ২ সেকেন্ড। তারপর এবার আরও সময় মাত্র এক দিন হওয়ায় ঈদ-উল-ফিতরের বেতন বোনাস না পাওয়ার সম্ভাবনা একশত ভাগ। সে ক্ষেত্রে সরিষাবাড়ীর শিক্ষক কর্মচারীরা ঈদ- নিয়ে সঙ্কায় আছেন।

প্রতিবেদক মনে করেন কর্তৃপক্ষ এ ব্যাপারে নজরদারি করলে শিক্ষক পরিবারে  আনন্দ বজায় থাকে। শিক্ষক সমাজ অবহেলিত হবে এটা প্রত্যাশিত নয়।

No comments

Powered by Blogger.