সরিষাবাড়ীতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দু-পক্ষের সংঘর্ষ:উভয় পক্ষের আহত ১০


রাশেদুল ইসলাম (জামালপুর): জামালপুর জেলার সরিষাবাড়ী উপজেলার ৩নং ডোয়াইল ইউনিয়নের রামানন্দ পুর হরখালি ব্রীজ পার এলাকায় এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে ।


স্থানীয় ও সংঘর্ষের ঘটনায় আহতের পরিবার সুত্রে জানা গেছে হরখালি ব্রীজ পার এলাকায় প্রায় প্রতিদিন একজন ভ্রাম্যমান কামার  বসে এলাকার মানুষের বিভিন্ন কাজ করে থাকে ।গত-সোমবার ১৫/৪/২০১৯ইং বিকেল বেলা রামনন্দপুর গ্রামের মুসলিম উদ্দিনের ছেলে ইসরাইল একটি শাবল বানাতে কামারের কাছে আসে কামাার শাবল বানাতে ৩০০/- (তিনশত ) টাকা মুজুরী  লাগবে বলে জানান ।


 এ সময় কামারের পাশে বসে থাকা একই গ্রামের ইব্রাহীমের ছেলে রিপন মিয়া মাতাব্বুরী করে ২৫০/- (দুইশত পঞ্চাশ) টাকা দিতে বলে ইসরাইলকে । ইসরাইল বলে আমি তোমার কথায় কেন দিব কামার তুমি কামার । এই এক কথায় দুই কথায় উভয়ের মদ্যে দন্ধ তৈরি পড়ে  কথা কাটাকাটি এক পর্যায়ে বিরাট সংঘর্ষ বাদে ।সংঘর্ষ ফেরাতে গিয়ে উভয় পক্ষের ১০১জন আহত হয় ।আহতরা হলেন মুকুল(২৬)আল-আমিন (২২)ইসরাইল (৩২)আলম(২০)রিনা (৩০)আব্দুল জলিল (৫০) মালেক (৪০) সহ সংঘর্ষ ফেরাতে গিয়ে আবিদ,আজাদ,অয়ন ,যুবলীগ নেতা মিল্টন সরকার ও শফিক মাষ্টার আহত হয়।

গুরুতর  আহতদের সরিষাবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ ভর্তি করা হয়েছে ।বাকীদের স্থানীয় ভাবে চিকিৎসা দ্ওেয়া হয়েছে ।


এ ব্যাপারে ব্রীজ পাড় হরখালী মারের চায়ের দোকান দার আঃমালেক অভিযোগ করে বলেন, অমর আলী, অয়ন, আল-আমিন ইসরাইল  ও জলিল আমার চায়ের দোকান বন্ধ করে দিয়ে দোকানের ক্যাশ বাক্স থেকে টাকা নিয়েছে ও মটর সাইকেল ভাংচুর করেছে । এ বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে ।


এ ব্যাপারে সরিষাবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ মাজেদুর রহমান বলেন,এখন পর্য়ন্ত আমাদের কাছে কোন অভিযোগ আসেনাই । অভিযোগ আসলে তদন্ত পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

No comments

Powered by Blogger.